http://www.gonokontho.blogpost.com

http://www.gonokontho.blogpost.com
http://www.gonokontho.blogpost.com

Paivacy Policy



গণকণ্ঠের ওয়েবসাইটগুলো ব্যবহারের সময় আপনার এবং আপনার পরিবারের ব্যক্তিগত তথ্য নিরাপদ রাখতে গণকণ্ঠ বদ্ধপরিকর। গণকণ্ঠর ওয়েবসাইটগুলো পুরোপুরি ব্যবহার করতে কখনও কখনও আপনাদের ব্যক্তিগত নানা তথ্য বিবিসিকে জানাতে হয়।

আপনার দেওয়া তথ্য ডেটা প্রোটেকশন অ্যাক্ট এবং ব্যক্তিগত তথ্য নিরাপদ রাখতে প্রযোজ্য সব বাংলাদেশ আইন অনুযায়ী ব্যবহার করা গণকণ্ঠর জন্য বাধ্যতামূলক।

গণকণ্ঠর ওয়েবসাইটগুলোতে অনেক সময় তৃতীয় কোন পক্ষের মালিকানাধীন ওয়েব সাইটের লিঙ্ক দেওয়া থাকে। বাইরের এ সব ওয়েবসাইটের বিষয়বস্তুর ব্যাপারে গণকণ্ঠর কোন দায়বদ্ধতা নেই এবং আপনি নিজ দায়িত্বে এগুলো ব্যবহার করতে পারেন।

গণকণ্ঠর ওয়েবসাইটগুলো ব্যবহার করতে গেলে আপনাকে কিছু ব্যক্তিগত তথ্য সরবরাহ করতে হতে পারে। যেমন আপনার নাম, ইমেইল ঠিকানা, টেলিফোন ও মোবাইল নম্বর অথবা জন্ম তারিখ।

নির্ধারিত জায়গায় আপনার তথ্য লেখার পর গণকণ্ঠ আপনাকে আপনার পছন্দের সার্ভিস ব্যবহার করার সুযোগ দেয়।

গণকণ্ঠ এ ক্ষেত্রে কিছু কুকি ব্যবহার করে। কুকি হলো খুব সামান্য কিছু ডেটা, যার মাধ্যমে ওয়েবসাইটে আপনার পছন্দ অপছন্দের তথ্য সংরক্ষিত থাকে। এতে করে গণকণ্ঠ আপনার পছন্দ অনুযায়ী ওয়েবসাইটগুলো উপস্থাপন করতে পারে। আপনি আপনার ওয়েব ব্রাউজারে এসব কুকি ঢোকার অনুমতি দিতে পারেন, এজন্য নোটিফিকশনের অপশন রাখতে পারেন - আবার কুকি ঢোকার অনুমতি নাও দিতে পারেন।

আপনার বয়স যদি ১৬ বা এর কম হয়ে থাকে, সেক্ষেত্রে গণকণ্ঠর ওয়েবসাইটে আপনার ব্যক্তিগত তথ্য দেবার আগে আপনার অভিভাবকের অনুমতি নিন।

অল্প কয়েকটি ক্ষেত্রে গণকণ্ঠ আপনার ব্যক্তিগত তথ্য ব্যবহার করে। এরমধ্যে রয়েছে, 'সার্ভিস অ্যাডমিনিস্ট্রেশন পার্পাস' যেমন, আপনি যে ওয়েব সাইট ব্যবহার করছেন সে সংক্রান্ত প্রয়োজনে গণকণ্ঠ আপনার সঙ্গে যোগাযোগ করতে পারে।

আইনগত বাধ্যবাধকতা থাকলে বা আইনগত নিষেধাজ্ঞা না থাকলে গণকণ্ঠ আপনার দেওয়া তথ্য গোপন রাখবে।
গণকণ্ঠ ওয়েবসাইটে আক্রমণাত্মক, আপত্তিকর অথবা যথাযথ নয় এমন কিছু পোস্ট করলে বা পাঠালে, বা অন্য কোনভাবে গণকণ্ঠর ওয়েবসাইটের কার্যক্রমে বাধা সৃষ্টি করলে, তা বন্ধ করতে গণকণ্ঠ আপনার ব্যক্তিগত তথ্য ব্যবহার করতে পারে।

No comments

Powered by Blogger.